Home / জাতীয় / ইসির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে যা বললেন আবদুর রব

ইসির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে যা বললেন আবদুর রব

আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে নির্বাচন কমিশনর (ইসি) বৈঠক করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি দল। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়।

সোমবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে গিয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে কথা বলে এই অনুরোধ জানিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধি দল।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে আ স ম রব বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আমাদের আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। আমাদের দাবিগুলোর মধ্যে কিছু বিষয়ে তারা কথা দিয়েছেন যে, এগুলো তারা রক্ষা করবেন। আর কয়েকটি বিষয়ে আমাদের কোনো সিদ্ধান্ত জানাতে পারেননি, তবে পরে জানাবেন বলেছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম দাবি ছিল সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তফসিল ঘোষণা না করা। আমরা তাদের বলেছি, অতীতের বহু নির্বাচন হয়েছে বহুবার তফসিল পিছিয়েছে কিন্তু কোনো সমস্যা হয়নি। অংশীজনের সঙ্গে আলোচনা না করে নির্বাচন হলে তা প্রশ্নবিদ্ধ হবে। ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সংসদের মেয়াদ আছে। সুতরাং তফসিল পেছালে মহাভারত অশুদ্ধ হবে না।’

ভোট গণনার আগে এজেন্টদের কাছে কোনো সই নেওয়া যাবে না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা কমিশনকে বলেছি, পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হয় না। কারা কথা দিয়েছে এজেন্টদের প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা দেওয়া হবে। তারা রেজাল্ট শিট তৃণমূল পর্যায়ে বিতরণ করবে বলেও জানিয়েছে। আমাদের দাবি, ভোট গণনার আগে এজেন্টদের কাছে কোনো সই নেওয়া যাবে না। তারপর কমিশনকে আমরা বলেছি, আপনারা ২০১৯ সালেও বাংলাদেশে থাকবেন। সেটা বিবেচনায় নিয়েই নির্বাচন করবেন।’

নির্বাচন কমিশনের বিষয়ে আস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, তাদের বিষয়ে কি কি বিষয়ে আপত্তি আছে তা তাদের বলা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন বিষয়ে আগের দাবির বিষয়ে জানতে চাইলে পাশ থেকে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘সেই দাবি আমাদের এখনো আছে।’

নির্বাচন কমিশনে গেছেন ঐক্যফ্রন্টের ৭ সদস্যের প্রতিনিধিদলে ছিলেন, আ স ম রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, মাহমুদুর রহমান মান্না, সুব্রত চৌধুরী, আবদুল মালেক রতন ও বরকত উল্লাহ বুলু।।

অন্যদিকে, নির্বাচন কমিশনের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। এ সময় অপর চার কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, শাহাদত হোসেন চৌধুরী ও কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

কে হচ্ছেন পরবর্তী অ্যাটর্নি জেনারেল ?

কে হচ্ছেন বাংলাদেশের পরবর্তী অ্যাটর্নি জেনারেল। এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টসহ দেশের আদালতপাড়ায় চলছে নানা গুঞ্জন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!